শিরোনাম:

মঙ্গলবার, ৪ জুলাই, ২০২৩

এবছরের সবচাইতে বড় সুপারমুন

 দৈনিক মাতৃভূমির সময়

৪ জুলাই ২০২৩ খ্রিষ্টাব্দ,

২০ আষাঢ় ১৪৩০ বঙ্গাব্দ, 


                                    ছবি সংগৃহীত
নিজস্ব প্রতিবেদক মোঃ খাইরুল ইসলাম :   সুপারমুন চাঁদের একটি দশা বা অবস্থা, চাঁদ যখন পৃথিবীর খুব কাছে অবস্থান করে তখন চাঁদকে পৃথিবী থেকে তুলনামূলকভাবে অনেক বড় আর উজ্জ্বল দেখায়। পূর্ণ গোলাকার চাঁদের এই অবস্থাকে সুপারমুন বলা হয়। সুপারমুনের কোন প্রচলিত বাংলা নেই। এটাকে অনেকে অতিকায় চাঁদ বলে থাকেন। পৃথিবী -চন্দ্র-সূর্য সিস্টেমে অতিকায় চাঁদের টেকনিক্যাল নাম হচ্ছে perigee-syzygy'। সুপারমুন শব্দটার উৎপত্তি আধুনিক জ্যোতিশাস্ত্রে , জ্যোতির্বিদ্যার  সঙ্গে এর কোন যোগসূত্র নেই। চন্দ্র, সূর্য, অবস্থানের কারণে পৃথিবীতে জোয়ার ভাঁটা হয়। সুপারমুনের কারণে পৃথিবীতে ভূমিকম্প  ও আজগেয়গিরির  অগ্ন্যুৎপাতের মত প্রাকৃতিক দূর্যোগ সংঘটিত হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। কিন্তু এখনওপর্যন্ত এই ধরনের কোন দুর্যোগের সংবাদ পাওয়া যায় নাই। ১৯৯৩ সালের সুপারমুন সাধারণ চাঁদ থেকে ২০ গুণ অধিক উজ্জ্বল এবং ১৫ গুণ বড় ছিলো। পৃথিবী থেকে সুপারমুন বা অতিকায় চাঁদ সর্বশেষ দেখা গেছে ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৫। চাঁদের সুপারমুনের বিপরীত দশা মাইক্রোমুন  যা টেকনিক্যালি apogee-syzygy নামে পরিচিত। সুপারমুনের রাতে জ্যোছনায় পৃথিবী প্লাবিত হয়। অন্যদিকে মাইক্রোমুনে পৃথিবী থাকে অন্যান্য অন্ধকারাচ্ছন্ন রাতের মত। তাই মাইক্রোমুন সুপারমুনের মত এত পরিচিতি পায়নি।

সাম্প্রতিকতম সুপারমুন ১৪ নভেম্বর , ২০১৬ দিকে ঘটেছে, ২৬ জানুয়ারী, ১৯৪৮ সাল থেকে পৃথিবীর সবচেয়ে নিকটতম সুপারমুন। সুপারমুন আবার আগামী ২৫ নভেম্বর, ২০৩৪ দিকে দেখা যাবে।


কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন